টেক বাংলা আইটি https://www.techbanglait.com/2021/10/How-to-Download-NID-Card-Online-Copy-Bangladesh-2021.html

জাতীয় পরিচয় পত্রের অনলাইন কপি ডাউনলোড

জাতীয় পরিচয় পত্রের অনলাইন কপি ডাউনলোড — একটি দেশের নাগরিক হিসেবে এনআইডি কার্ড বা জাতীয় পরিচয় পত্রের গুরুত্ব অনেক। আজকের এই আর্টিকেলটির মাধ্যমে কিভাবে ঘরে বসে অনলাইনে জাতীয় পরিচয় পত্র বা এনআইডি কার্ডের সফটকপি প্রিন্ট করা যায় সে সম্পর্কে জানতে পারবেন। এছাড়াও জাতীয় পরিচয় পত্রের অনলাইন কপি ডাউনলোড সম্পর্কে যাবতীয় নানাবিধ তথ্য জানতে পারবেন।

বাংলাদেশ সংবিধানের নিয়ম অনুযায়ী ১৮ বছরের নিচে সবার পরিচয় পত্র হিসেবে থাকে শুধুমাত্র জন্ম সনদ। কিন্তু ১৮ বছরের উপরে সবাইকে বাংলাদেশ নির্বাচন কমিশন এর তালিকায় আওতাভুক্ত করা হয়। অর্থাৎ ভোটার হিসেবে গণ্য করা হয়। বাংলাদেশে ২০০৮ সালের ২২ শে জুলাই ১৮ বছর বয়সী সকল বাংলাদেশি নাগরিকদের জন্য একটি জাতীয় পরিচয়পত্র প্রণয়ন শুরু হয় যা ১০ বছর মেয়াদি। এই পরিচয়পত্রটি বাংলাদেশ নির্বাচন কমিশন নির্বাচন ছাড়াও আরো অন্যান্য ক্ষেত্রে ব্যবহার করা হয়। 

জাতীয় পরিচয় পত্রের অনলাইন কপি ডাউনলোড

কিভাবে জাতীয় পরিচয় পত্রের অনলাইন কপি ডাউনলোড করা যায়?

প্রয়োজনীয় তথ্যাবলী পূরণ করে নিবন্ধন প্রক্রিয়া সম্পন্ন করুন। আপনার কার্ডের তথ্য ও মোবাইলে প্রাপ্ত এক্টিভেশন কোড সহকারে লগ ইন করুন। তথ্য পরিবর্তনের ফর্মে তথ্য হালনাগাদ করে সেটির প্রিন্ট নিয়ে নিন। তথ্য পরিবর্তনের স্বপক্ষে প্রয়োজনীয় দলিলাদি কালার স্ক্যান কপি অনলাইনে জমা দিন।

জাতীয় পরিচয় পত্র ডাউনলোড করতে নিম্নোক্ত পদ্ধতিগুলো অনুসরণ করুন

১। আপনার মোবাইল অথবা কম্পিউটারের যেকোনো ব্রাউজারে প্রবেশ করুন এই লেখাটি সার্চ করুন https://services.nidw.gov.bd/nid-pub/claim-account অথবা এই লিঙ্কে ক্লিক করুন

২। লিংকটিতে প্রবেশ করার পর জাতীয় পরিচয়পত্রের নাম্বার অর্থাৎ এনআইডি কার্ডের নাম্বার প্রদান করুন। যাদের কাছে এনআইডি কার্ড আছে, তারা সেখান থেকে দেখে নম্বরটি লিখুন। এনআইডি কার্ড করার সময় যে তথ্য দিয়েছেন সে অনুযায়ী জন্মতারিখ লিখুন। ভেরিফিকেশন ক্যাপচা পূরণ করে সাবমিট এ ক্লিক করুন।

৩। এরপর একটি নতুন ফর্ম আসবে। সেখান থেকে যথাযথভাবে আপনার বর্তমান ঠিকানা এবং স্থায়ী ঠিকানার তথ্য প্রদান করুন।

৪। পরবর্তী পেজে আপনি একটি নতুন ফরম পাবেন যেখানে আপনার মোবাইল নাম্বারটা চাইবে। উক্ত ফর্মে আপনার সঠিক নাম্বারটি টাইপ করুন। তারপর “বার্তা পাঠান” এ ক্লিক করুন।

৫। যেই মোবাইল নাম্বারটা দিয়েছেন সেই মোবাইল নাম্বারে ওটিপি যাবে সেই ওটিপি ফর্ম এ পূরণ করতে হবে। 

৬। এরপর পাসওয়ার্ড সেট করার আরেকটি পেজ ওপেন হবে সেখানে আপনাকে পাসওয়ার্ড এবং ইউজার নেম সেট করতে হবে। মনে রাখবেন পরবর্তীতে লগইন করার ক্ষেত্রে এই ইউজার নেম এবং পাসওয়ার্ড কাজে লাগবে।

৭। সর্বশেষ এ আপডেট বাটনে ক্লিক করুন। এভাবেই আপনার রেজিস্ট্রেশন সম্পন্ন হবে।

৮। তারপর আপনাকে এই https://services.nidw.gov.bd/nid-pub/ লিংকটা হতে লগইন করতে হবে। লগইন করতে রেজিস্ট্রেশন করার সময় যে ইউজারনেম এবং পাসওয়ার্ড দিয়েছিলেন তা ব্যবহার করে লগইন করতে হবে। সফলভাবে লগইন করতে হলে আপনাকে ক্যাপচা সঠিকভাবে পূরণ করতে হবে এবং আপনার নাম্বারে একটি সিকিউরিটি কোড যাবে সেটি নির্ভুলভাবে পূরণ করতে হবে।

৯। সবশেষে লগইন করার পর জাতীয় পরিচয় পত্রের অনলাইন কপি ডাউনলোড করতে ডানদিকে নীচে থাকা ডাউনলোড বাটনে ক্লিক করতে হবে। 

১০। এভাবেই উপরের ধাপগুলো অনুসরণ করার মাধ্যমে আপনি খুব সহজেই ঘরে বসেই অনলাইনে আপনার কাঙ্খিত এনআইডি কার্ডের সফটকপি প্রিন্ট করতে পারবেন বা ডাউনলোড করতে পারবেন।

কিভাবে অনলাইনে জাতীয় পরিচয় পত্রের তথ্য জানবেন?

১। আপনাদের সবার মনে হয়েছে একই প্রশ্ন কিভাবে নিজের ভোটার আইডি কার্ড দেখবো? আপনি চাইলে খুব সহজেই ঘরে বসে ইন্টারনেট কানেকশনের মাধ্যমে আপনার একটি মোবাইল বা কম্পিউটার এর মাধ্যমে অনলাইনে ভোটার আইডি কার্ড সম্পর্কে তথ্যগুলো জানতে পারবেন।

২। যখনই আপনি আপনার ভোটার তথ্য হালনাগাদ করবেন তখনই আপনার পূরণ করা ফরম এর একটি অংশ আপনাকে দেওয়া হবে। এটির মধ্যে একটি ফরম নম্বর থাকবে তা আপনাকে সংগ্রহ করতে হবে। যদি আপনার ইতিমধ্যেই ভোটার আইডি কার্ড রয়েছে আপনি ভোটার আইডি কার্ডের অনলাইন কপি ডাউনলোড করতে চাচ্ছেন তাহলে আপনার শুধু আইডি কার্ড নাম্বা রটি থাকলেই হবে।

নিম্নোক্ত উপায় গুলো অনুসরণ করার মাধ্যমে আপনি আপনার ভোটার আইডি কার্ড ঘরে বসেই অনলাইনে চেক করতে পারবেন!

১। প্রথমে আপনাকে আপনার ইন্টারনেট কানেকশনের মাধ্যমে মোবাইল বা কম্পিউটারের যেকোনো ব্রাউজার থেকে বাংলাদেশ নির্বাচন কমিশনের অফিশিয়াল ওয়েবসাইটে প্রবেশ করতে হবে।

২। প্রবেশ করার পর আপনি অন্যান্য তথ্য নামের একটি অপশন পাবেন। তারপর সেখান থেকে ভোটার তথ্য অপশন পাবেন এবং সেখানে ক্লিক করতে হবে।

৩। Services.nidw.gov.bd এই লিংকের মাধ্যমে আপনি চাইলে ওয়েবসাইটটি ভিজিট করতে পারেন।

৪। তারপর আপনি ফোন নম্বর এবং এন আইডি নম্বর এরকম দুইটি অপশন দেখতে পারবেন। আপনার নিকটস্থ নির্বাচন কমিশন হতে দেওয়া নম্বরটি টাইপ করতে হবে।

৫। মনে রাখবেন এন আইডি নম্বর বা ফরম নম্বর এবং জন্ম তারিখ এর সঠিক তথ্য দিতে হবে। অন্যথায় আপনি আপনার কাঙ্খিত ফলাফল পাবেন না। সবকিছু শেষ করার পর আপনি একটি ক্যাপচা অপশন দেখতে পারবেন সেখানে ক্যাপচাটি নির্ভুল ভাবে সম্পন্ন করুন।

৬। এরপর সর্বশেষে আপনি” ভোটার তথ্য দেখুন ” নামের একটি অপশন পাবেন। এই অপশন এ ক্লিক করুন।

৭। সকল তথ্য সঠিক ও নির্ভুল হলে আপনি যে জাতীয় পরিচয় পত্রটি সংগ্রহ করতে চাচ্ছেন বা দেখতে চাচ্ছেন সেটি ঘরে বসে অনলাইনেই দেখতে পাবেন।

৮। এছাড়া আপনি আপনার সাধারণ বাটন ফোনের মাধ্যমেও জাতীয় পরিচয় পত্রটি বের করতে পারবেন। মোবাইলের মেসেজ অপশন এ গিয়ে টাইপ করুন NID 12589945 D-M-Y ( NID xxxxxxxx 05-08-1998) এই উদাহরণস্বরূপ লিখতে হবে ।

৯। এরপর ১০৫ নম্বরে সেন্ড করতে হবে। কিছুক্ষণ পর আপনার মোবাইলে একটি মেসেজ আসবে। ঠিক কিছুক্ষণ পরে আপনাকে ফিরতি ম্যাসেজ দেয়া হবে। সেখানে আপনার জাতীয় পরিচয় পত্র সম্পর্কিত সকল তথ্য পেয়ে যাবেন।

জাতীয় পরিচয় পত্রের অনলাইন কপি ডাউনলোড করার নিয়ম দেখুন ভিডিওতে

শেষ কথা

আপনার জাতীয় পরিচয় পত্র বা এনআইডি কার্ড একজন দেশের নাগরিক হিসেবে আপনার অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ একটি সম্পদ। সুতরাং সব সময় এটিই নিরাপদ জায়গায় রাখার চেষ্টা করবেন। আর যাদের বয়স ১৮ পার হয়েছে কিন্তু এখনও তারা নতুন এনআইডি কার্ডের জন্য আবেদন করেননি তারা খুব শিগগিরই আবেদন করে ফেলুন। 

আশা করছি এই আর্টিকেলটির মাধ্যমে আপনি খুব সহজেই ঘরে বসেই অনলাইনে আপনার জাতীয় পরিচয় পত্রের সফট কপি প্রিন্ট করতে পারবেন বা ডাউনলোড করতে পারবেন। যদি আপনার এই সংক্রান্ত কোন মন্তব্য থেকে থাকে তাহলে দয়া করে আপনার মূল্যবান মন্তব্যটি আমাদের কমেন্ট বক্সে কমেন্ট করুন। আমরা আপনার মন্তব্যের সঠিক ব্যাখ্যা দেয়ার জন্য অঙ্গীকারবদ্ধ।

অন্যদের সাথে শেয়ার করুন

0 Comments

দয়া করে নীতিমালা মেনে মন্তব্য করুন ??

নটিফিকেশন ও নোটিশ এরিয়া